Tuesday, January 31, 2023
Homeখবর এখনকাটমানি নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য শোনা গেল বড়ঞা থানার OC-র গলায়.

কাটমানি নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য শোনা গেল বড়ঞা থানার OC-র গলায়.

 প্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধাঃ পঞ্চায়েত ভোটের আগে ফের কাটমানি  ইস্যুতে সরগরম হয়ে উঠল মুর্শিদাবাদের  বড়ঞা। এবার কাটমানি নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য শোনা গেল বড়ঞা থানার OC-র গলায়। একেবারে সরকারি আধিকারিক থেকে শাসকদলের নেতাদের বিরুদ্ধে কাটমানি নেওয়ার বিস্ফোরক অভিযোগ তুলেছেন বড়ঞা থানার OC। এমনকি থানার OC-দের বিরুদ্ধেও অভিযোগের আঙুল তুলেছেন তিনি। তাঁর সেই মন্তব্যের ভিডিয়ো বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। যদিও সেই ভিডিয়োর সত্যতা যাচাই করেনি ‘মুক্তিযোদ্ধা’।ভাইরাল হওয়া ভিডিয়োটিতে দেখা যাচ্ছে, প্রকাশ্য এক সভায় বড়ঞা থানার OC বলছেন, “সরকারি ঠিকাদারি সংস্থার কাজ করতে ব্লক অফিসে দিতে হয় চার শতাংশ কমিশন। আগের ওসি-কে দিতে হত পাঁচ শতাংশ কমিশন। স্থানীয়দের দিত চার-পাঁচ শতাংশ কমিশন। সেই জন্য আমি এই এলাকায় একটি কাজ বন্ধ করে দিয়েছি।” একইসঙ্গে বড়ঞা থানার OC-র নিদান, “আরে খেতে হলে অল্প করে খাও। টাকা মারো, এক শতাংশ মেরে খাও। সরকার যেমনটা চায়, সেরকম অল্প করে খেয়ে উন্নয়ন কর।”জানা গিয়েছে, এলাকায় একটি কালীপুজোর অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন বড়ঞা থানার  OC। সেই অনুষ্ঠাব মঞ্চ থেকেই কাটমানি নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন তিনি। OC-র মুখে এই ধরনের মন্তব্য ভাইরাল হতে বেশি সময় লাগেনি। আর সেই ভিডিয়ো ঘিরে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহলে।কাটমানি নিয়ে OC-র মন্তব্যকে সমর্থন জানিয়েছেন বড়ঞার বিধায়ক জীবনকৃষ্ণ সাহাও। এপ্রসঙ্গে তৃণমূল বিধায়ক বলেন, “OC যুক্তিপূর্ণ কথা বলেছেন। আমরা চাই, মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাক। কাটমানি বন্ধ হোক। ওনার বক্তব্যকে সমর্থন জানাচ্ছি। তৃণমূল বিধায়কের এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে পালটা কটাক্ষ করেছেন বিরোধীরা।” কাটমানি নিয়ে OC-র মন্তব্যকে সমর্থন জানিয়েছেন বিধায়ক। তাহলে সরকারি প্রকল্পের কাজ নিয়ে যে এলাকায় কাটমানির রমরমা চলে, তা বিধায়ক কার্যত স্বীকার করে নিয়েছেন বলে কটাক্ষ করেছেন বিরোধীরা।অন্যদিকে, কাটমানি নিয়ে OC যে মন্তব্য করেছেন, সেটা সাহসিকতার নজির বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ মুর্শিদাবাদ জেলা বিজেপি সভাপতি শাখারভ সরকারের। তাঁর কথায়, “আজ প্রথম কোনও OC-র এরকম সাহসিকতা দেখলাম। আমরা, এমনকি প্রধানমন্ত্রীও বারবার কাটমানি না নেওয়ার কথা বলেছেন কিন্তু রাজ্য সরকার সেটা মানেনি। আজ প্রথমবার রাজ্য সরকারের কোনও কর্মী সেই সাহসিকতা দেখাতে পারল।”

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Skip to toolbar