Sunday, January 29, 2023
Homeখবর এখনবিজয়া সম্মিলনীর মোড়কে নিজেদের 'ড্যামেজ কন্ট্রোলে' ব‍্যস্ত তৃণমূল, রাজ্য জুড়ে হচ্ছে...

বিজয়া সম্মিলনীর মোড়কে নিজেদের ‘ড্যামেজ কন্ট্রোলে’ ব‍্যস্ত তৃণমূল, রাজ্য জুড়ে হচ্ছে পাঁচশোর বেশি সভা…

 প্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধিঃ-

 পুজো মিটতেই নিয়োগ দুর্নীতি কাণ্ডের ক্ষত মেরামতির কাজে নেমে পড়ছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল। রাজ্য জুড়ে পাঁচশোরও বেশি জনসভা করার পরিকল্পনা নিয়েছে তৃণমূল। সেখানে মানুষকে বিজয়ার শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি তৃণমূল সরকারের সাফল্যের বিভিন্ন দিকও তুলে ধরা হবে বলে জানিয়েছেন মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।নিয়োগ দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়ে কারাগারে প্রাক্তন মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। গরু পাচার মামলায় জেলেই রয়েছেন বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলও। এই অবস্থায় দৃশ্যত অস্বস্তিতে তৃণমূল নেতৃত্ব চাইছে ঘুরে দাঁড়াতে। তাই এ বার সরাসরি মানুষের কাছে যেতে চাইছে তৃণমূল। আর তা করতে তৃণমূলের হাতিয়ার বিজয়া সম্মিলনী।

প্রতিটি ব্লকের মানুষের কাছে পৌঁছতে আগামী ১১ অক্টোবর থেকে ২২ অক্টোবরের মধ্যে জেলায় জেলায় পাঁচশোটিরও বেশি জনসভা করার পরিকল্পনা গৃহীত হয়েছে। সেই সভায় মানুষকে বিজয়ার শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি ছ’দফা ইস্যু তুলে ধরা হবে। তার মধ্যে যেমন রয়েছে, বাম জমানায় সরকারের ইংরেজি ও কম্পিউটার বিরোধিতার প্রসঙ্গ, তেমনই তৃণমূল সরকারেরআমলে কী ভাবে শিক্ষা-সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে রাজ্য এগিয়ে গিয়েছে, তার খতিয়ান। মমতা সরকারের গ্রহণ করা বিভিন্ন পদক্ষেপের জেরে মানুষ কী ভাবে উপকৃত হয়েছেন, তা-ও তুলে ধরবেন তৃণমূল নেতারা। উত্‍সবের মোড়কে কেন্দ্রের প্রতিহিংসার অভিযোগও মানুষের কানে তুলে দিতে চাইছে তৃণমূল।

পার্থ, অনুব্রতের জেলযাত্রার জেরে নিত্য বিরোধীদের আক্রমণের মুখে পড়ছে তৃণমূল। দলীয় ভাবে পার্থের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হলেও অনুব্রতের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেয়নি দল। দল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রকাশ্যে অনুব্রতের পাশে দাঁড়িয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামতে চলেছে রাজ্যের শাসকদল। মুখপাত্র তথা দলের রাজ্য সম্পাদক কুণাল বলেন, ”আগামী ১১থেকে ২২ অক্টোবর রাজ্য জুড়ে পাঁচশোরও বেশি জনসভা করে মানুষকে বিজয়ার শুভেচ্ছা জানানো হবে। তাতে সংশ্লিষ্ট জেলার জনপ্রতিনিধিরা ছাড়াও হাজির থাকবেন দলের শীর্ষ নেতৃত্ব। সভায় তৃণমূল সরকারের কর্মকাণ্ড তুলে ধরা হবে।”

তৃণমূলের অন্দরের খবর, পার্থ-কাণ্ডের ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামতে আর দেরি করতে চায় না দল। তাই বিজয়ার শুভেচ্ছা জানানোর মোড়কে মানুষের সামনে তুলে ধরা হবে, বাম আমলের শিক্ষার সামগ্রিক বেহাল পরিস্থিতি থেকে মোদী জমানায় নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের আকাশছোঁয়া মূল্যবৃদ্ধির প্রসঙ্গ। কেন্দ্রীয় এজেন্সিকে রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে মোদীর সরকারের ব্যবহার-সহ গত এক দশকের বেশি সময় ধরে রাজ্যের সামগ্রিকউন্নতিসাধনে তৃণমূল সরকারের কাজকর্ম জনসভায় তুলে ধরা হবে।

তৃণমূল সূত্রে খবর, দুর্নীতি যে হয়েছিল তা এক প্রকার মেনে নিয়েই সরকারের ভাল দিক তুলে ধরার পরিকল্পনা করা হয়েছে। আগামী দিনে রাজ্যে ব্যাপক কর্মসংস্থান তৈরির বিষয়টিও তুলে ধরা হবে। সর্বোপরি মানুষের কাছে তুলে ধরা হবে, দল ও সরকারের স্বচ্ছতা বজায় রাখার প্রক্রিয়ার কথা। একই ভাবে মানুষকে জানানো হবে, চাকরিপ্রার্থীদের তালিকায় ওয়েটিংয়ে নাম থাকা প্রার্থীদেরও কী ভাবে চাকরিতে নেওয়া যায়, তা জানতে আদালতে এই মর্মে হলফনামা দেওয়া হয়েছে তা-ও। অর্থাত্‍, দুর্নীতির অভিযোগ থেকে নজর ঘুরিয়ে বিরোধীদের জবাব দেওয়ার রাস্তাতেই হাঁটতে চলেছে তৃণমূল।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Skip to toolbar