Tuesday, January 31, 2023
Homeখবর এখনসমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে পঞ্জাবের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং বিজেপিতেই যোগ দিলেন

সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে পঞ্জাবের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং বিজেপিতেই যোগ দিলেন

 প্রতিনিধি,মুক্তিযোদ্ধাঃ সমস্ত জল্পনার অবসান। বিজেপিতেই যোগ দিলেন পঞ্জাবের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। শুধু নিজে যোগ দিলেন না, সেই সঙ্গে তাঁর নতুন দল পঞ্জাব লোক কংগ্রেসও মিশে গেল গেরুয়া শিবিরের সঙ্গে। সোমবার দিল্লিতে বিজেপির প্রবীণ নেতা নরেন্দ্র সিং তোমর, কিরেণ রিজিজু এবং প্রাক্তন কংগ্রেস সাংসদ সুনীল ঝাখরের উপস্থিতিতে বিজেপির পতাকা হাতে তুলে নিলেন ক্যাপ্টেন।এর আগে, পঞ্জাবে গত বিধানসভা নির্বাচনের আগে কংগ্রেস নেতা নভজ্যোৎ সিং সিধুর সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েন অমরিন্দর। গত নভেম্বরের ২ তারিখ কংগ্রেস ছেড়ে নতুন দল পঞ্জাব লোক কংগ্রেস প্রতিষ্ঠা করেন। নির্বাচনে বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়ে লড়লেও, ভারাডুবি হয় অমরিন্দরের দলের। পাতিয়ালা আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে আপ প্রার্থী অজিত পাল সিং কোহলির কাছে হেরেও যান ৮০ বছরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। নিবার্চনে ভরাডুবির পর মেরুদণ্ডের অস্ত্রোপচারের জন্য লন্ডনে যান অমরিন্দর। গত জুলাই মাসে দেশে ফিরে আসেন তিনি। দেশে ফিরলেও, তাঁর নতুন দল পঞ্জাব লোক কংগ্রেসের কোনও রাজনৈতিক কার্যকলাপ চোখে পড়েনি। এরপরই অমরিন্দর ও তাঁর নতুন দলের ভবিষ্যত নিয়ে শুরু হয় জল্পনা।সূত্রের খবর, কয়েকদিন আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করেন অমরিন্দর সিং। ১২ সেপ্টেম্বর অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকের পরে নতুন করে শুরু হয়, তার বিজেপি যোগদানের জল্পনা। পঞ্জাবের বর্তমান পরিস্থিতি এবং সার্বিক উন্নয়ন নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর বৈঠক হয় বলে তখন জানিয়েছিলেন সিং। তবুও একটা জল্পনা চলছিল। সেই জল্পনার সিলমোহর পড়ল আনুষ্ঠানিকভাবে ক্যাপ্টেনের বিজেপিতে যোগদানের সঙ্গে সঙ্গে।পঞ্জাবের বিজেপির সংগঠন তেমন শক্তিশালী নয়। এর আগে শিরোমণি অকালি দলের সঙ্গে জোট করে নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে হয়েছিল গেরুয়া শিবিরকে। তিন কৃষি আইনের প্রতিবাদে এনডিএ সঙ্গ ত্যাগ করেছে শিরোমণি অকালি দল। এই অবস্থায় দলীয় সংগঠন শক্তিশালী করতে বিজেপির প্রয়োজন ছিল একজন দক্ষ সংগঠকের। অমরিন্দরের যোগদানের সঙ্গে সঙ্গে কেন্দ্রের শাসক দলের সেই চিন্তা দূর হল বলে মনে করা হচ্ছে।দলবদলু হিসেবে অমরিন্দরের পরিচয় এই প্রথম নয়। দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে একাধিকবার দল পাল্টেছিলেন তিনি। ১৯৬৮ সালে রাজনীতিতে অভিষেক হয় ভারতীয় সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত আধিকারিকের। ১৯৮০ সালে কংগ্রেসের টিকিটে পাতিয়ালা কেন্দ্র থেকে জিতে সংসদীয় রাজনীতিতে পা দেন অমরিন্দর। তবে, ইন্দিরা গান্ধীর আমলে স্বর্ণমন্দিরে সেনা অভিযানের প্রতিবাদ করে কংগ্রেস ছাড়েন ক্যাপ্টেন। ১৯৯২ সালে নতুন দল তৈরি করেন পঞ্জাবের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। নতুন দলের নাম দেন অকালি দল (পন্থিক)। শিরোমণি অকালি দলের সঙ্গে জোট করে নতুন দল। কিন্তু শিরোমণি অকালি দলের প্রধান প্রকাশ সিং বাদলের সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায়, ১৯৯৭ সালে ফের কংগ্রেসে ফিরে আসনে অমরিন্দর। দুই বছর পর অর্থাৎ ১৯৯৯ সালে পঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচিত হন । কংগ্রেসে থাকাকালীন ২০০২ এবং ২০১৭ সালে পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী হন তিনি। এবার বিজেপি-তে অমরিন্দরের নতুন ইনিংস কেমন হয়, সেটাই দেখার।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Skip to toolbar