Friday, January 27, 2023
Homeখবর এখনবিজেপি কর্মীদের কলকাতায় আসতে বাধা পুলিশের, তুমুল উত্তেজনা রাজ্য জুড়ে

বিজেপি কর্মীদের কলকাতায় আসতে বাধা পুলিশের, তুমুল উত্তেজনা রাজ্য জুড়ে

 প্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধাঃ আজ অর্থাৎ মঙ্গলবার বিজেপির নবান্ন অভিযান শুরু হয়ে গেছে সকাল থেকেই। সকাল থেকেই রাজি বিভিন্ন প্রান্তে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা মিছিল করে রওনা দিয়েছেন কলকাতার উদ্দেশ্যে। কিন্তু মাঝ পথে পুলিশ বাধা দিয়েছে বলে অভিযোগ বিজেপি কর্মীদের। বাঁকুড়া থেকে ঝাড়গ্রাম, সর্বত্র পুলিশের বিরুদ্ধে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা অভিযোগ জানিয়েছেন বাধা দেওয়ার। বাঁকুড়ায় সোনামুখী পুলিশ মিছিল করে আসা ২৫ জন বিজেপি কর্মীকে আটক করে বিজেপি সভাপতি সুকান্ত কুমার জানিয়েছেন, ভয় পেয়েছে মমতা। পাশাপাশি দিলীপ ঘোষ বলেন, এত ভয় পাওয়ার কি আছে?জানা গেছে, আজ সকাল বেলা সোনামুখী বিধানসভার বিধায়ক দিবাকর ঘরামির নেতৃত্বে বিজেপি কর্মীরা নবান্ন অভিযানের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন। কিন্তু সোনামুখী স্টেশনে ঢোকার আগেই সোনামুখী থানার পুলিশ বাহিনী আটকে যায় তাদের। পাশাপাশি ২৫ জন বিজেপি কর্মীকে আটক করে সোনামুখী থানায় নিয়ে আসে পুলিশ যার প্রতিবাদে বিধায়কের নেতৃত্বের সোনামুখী থানায় বিক্ষোভ পড়েন বিজেপি কর্মীরা। কিছুক্ষণ বাড়ি পুলিশ প্রত্যেককে ব্যক্তিগত বন্ডে ছেড়ে দেন।গতকাল রাতে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের আটক করার অভিযোগ উঠেছে বাঁকুড়া সদর থানার পুলিশের বিরুদ্ধে। বিজেপির বাঁকুড়া জেলা সভাপতি সুনীল রুদ্র মন্ডলের অভিযোগ জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা ট্রেন ধরার জন্য বাঁকুড়া আসার পথে বিভিন্ন থানা এলাকায় এলে তাদের আটক করে দেয় পুলিশ। বাঁকুড়া স্টেশন থেকে চারজনকে আটক করেন বাঁকুড়া পুলিশ।এরপরই বিজেপি কর্মীরা পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে রাত দুটো নাগাদ স্পেশাল ট্রেনে চেপে হাওড়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে যান। অন্যদিকে ঝাড়্গ্রাম শহরে ঢোকার প্রত্যেকটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা পুলিশ ব্যারিকেড করে আটকে দিয়েছে।

প্রত্যেকটি গাড়ি তল্লাশি করা হচ্ছে, গাড়ির ভেতরে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা রয়েছেন কিনা। পুলিশ বিজেপি কর্মী সমর্থকদের তাদের এলাকায় আটকে দিচ্ছে এমনই অভিযোগ উঠেছে সর্বত্র। আবার দুর্গাপুর স্টেশন চত্বরে বিজেপির লোক কর্মীরা পুলিশের ভয়ে লুকিয়ে রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

যদিও সকাল থেকে যাতে কোনো রকম অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তাই পানা ঘরের বিভিন্ন মোড়ে পুলিশকর্মীরা মোতায়ন ছিলেন। অন্যদিকে শুভেন্দু অধিকারীর খাসতালুক কাঁথি এলাকায় বিজেপি কর্মীদের স্টেশন যাওয়ার সময় পুলিশ ব্যারিকেট করে রাস্তা ঘিরে রাখে বলে অভিযোগ। পরে বিজেপি কর্মীরা ব্যারিকেড ভেঙে স্টেশনে চলে যায়।

বিজেপি কর্মী সমর্থকদের পুলিশ আটক করছে অভিযোগে সরাব হয়ে সোনামুখীর বিধায়ক দিবাকর ঘরামী বলেন, সরকার কত নিচে নেমে গেছে এটা বোঝাই যাচ্ছে। এভাবে গণতন্ত্রকে আটকে রাখা যায় না। আজ ঐতিহাসিক নবান্ন অভিযান হবেই।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Skip to toolbar