Tuesday, January 31, 2023
Homeখবর এখনমমতার করলেন ‘আরএসএস বন্দনা’, তীব্র আক্রমণ বাম-কংগ্রেস-ওয়াইসির...

মমতার করলেন ‘আরএসএস বন্দনা’, তীব্র আক্রমণ বাম-কংগ্রেস-ওয়াইসির…

 আরএসএস নিয়ে মমতার মন্তব্যে জলঘোলা হতে শুরু করেছে। রাজনৈতিক মহলে মমতার  মন্তব্যের তীব্র প্রতিক্রিয়া হয়েছে। সাধারণত মুসলিম প্রীতি নিয়ে মমতাকে বরাবর আক্রমণ করে গেরুয়া বাহিনী এবার কিন্তু ছবিটা একদম ভিন্ন। বরং এবার আরএসএস প্রীতির জন্য তাঁকে একযোগে আক্রমণ করেছে বাম-কংগ্রেস ও আসাদউদ্দিন ওয়াইসির দল। বুধবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে সংবাদমাধ্যমের দপ্তরে আয়কর হানা নিয়ে বিজেপিকে নিশানা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই প্রসঙ্গেই টেনে আনেন আরএসএস প্রসঙ্গ। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সব মালিককেই থ্রেট করা হচ্ছে আর একটা করে লোক গিয়ে আরএসএসের নাম করে… আরএসএস এত খারাপ ছিল না। এত খারাপ বলে আমি বিশ্বাস করি না। এখনও ওদের মধ্যে কিছু ভদ্রলোক আছে যারা বিজেপিকে ওভাবে সমর্থন করে না তারাও একদিন বাঁধ ভাঙবে।’এরপরই ফের আরও একবার মমতা-আরএসএস ঘনিষ্ঠতার প্রসঙ্গ তুলে ধরে ধারাল আক্রমণ করেন অল ইন্ডিয়া মজলিশ এ ইত্তেহাদুল মুসলিমিন প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি। তিনি বলেন, ‘২০০৩ সালেও উনি আরএসএসকে দেশপ্রেমিক বলেছিলেন। বিনিময়ে আরএসএস তাঁকে দুর্গা আখ্যা দেয়।’ বাংলায় নির্বাচনে লড়ে একটিও আসন পায়নি আসাদউদ্দিন ওয়াইসির দল। তৃণমূল-বিজেপি উভয়ের বিরুদ্ধে নামলেও মুসলিম প্রধান এলাকাগুলিতে মুখ থুবড়ে পড়ে আসাদউদ্দিনের সংগঠন। আজ আসাদউদ্দিন বলেন, ‘দলের মুসলিম নেতারা হয়তো এরপরও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সততার প্রশংসা করবেন।’Uttarbanga Sambad | Latest news and happening about North Bengal today

Home  BREAKING NEWS

Mamata Banerjee | মমতার ‘আরএসএস বন্দনা’, তীব্র আক্রমণ বাম-কংগ্রেস-ওয়াইসির

11 hours ago

A A

উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক: আরএসএস নিয়ে মমতার মন্তব্যে জলঘোলা হতে শুরু করেছে। রাজনৈতিক মহলে মমতার (Mamata Banerjee) মন্তব্যের তীব্র প্রতিক্রিয়া হয়েছে। সাধারণত মুসলিম প্রীতি নিয়ে মমতাকে বরাবর আক্রমণ করে গেরুয়া বাহিনী। এবার কিন্তু ছবিটা একদম ভিন্ন। বরং এবার আরএসএস প্রীতির জন্য তাঁকে একযোগে আক্রমণ করেছে বাম-কংগ্রেস ও আসাদউদ্দিন ওয়াইসির দল। বুধবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে সংবাদমাধ্যমের দপ্তরে আয়কর হানা নিয়ে বিজেপিকে নিশানা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই প্রসঙ্গেই টেনে আনেন আরএসএস প্রসঙ্গ। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সব মালিককেই থ্রেট করা হচ্ছে। আর একটা করে লোক গিয়ে আরএসএসের নাম করে… আরএসএস এত খারাপ ছিল না। এত খারাপ বলে আমি বিশ্বাস করি না। এখনও ওদের মধ্যে কিছু ভদ্রলোক আছে যারা বিজেপিকে ওভাবে সমর্থন করে না। তারাও একদিন বাঁধ ভাঙবে।’

এরপরই ফের আরও একবার মমতা-আরএসএস ঘনিষ্ঠতার প্রসঙ্গ তুলে ধরে ধারাল আক্রমণ করেন অল ইন্ডিয়া মজলিশ এ ইত্তেহাদুল মুসলিমিন প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি। তিনি বলেন, ‘২০০৩ সালেও উনি আরএসএসকে দেশপ্রেমিক বলেছিলেন। বিনিময়ে আরএসএস তাঁকে দুর্গা আখ্যা দেয়।’ বাংলায় নির্বাচনে লড়ে একটিও আসন পায়নি আসাদউদ্দিন ওয়াইসির দল। তৃণমূল-বিজেপি উভয়ের বিরুদ্ধে নামলেও মুসলিম প্রধান এলাকাগুলিতে মুখ থুবড়ে পড়ে আসাদউদ্দিনের সংগঠন। আজ আসাদউদ্দিন বলেন, ‘দলের মুসলিম নেতারা হয়তো এরপরও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সততার প্রশংসা করবেন।’যদিও ওয়াইসির অভিযোগকে লঘু করার চেষ্টা করেছে তৃণমূল। তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় বলেন, ‘ওয়াইসির কাছে আমাদের প্রমাণ করার কিছু নেই। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলার চেষ্টা করেছেন সব সংগঠনেই ভালো ও খারাপ মানুষ আছে। বিগত বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি-আরএসএসকে হারানোর পর আমাদের সাম্প্রদায়িক সত্ত্বা প্রমাণ করার কিছু নেই।‘

কংগ্রেসের তরফে অধীররঞ্জন চৌধুরিও ওয়াইসির সুরেই বৃহস্পতিবার পিটিআইকে বলেছেন, ‘এটা প্রথম নয় যে উনি (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) আরএসএসের প্রশংসা করেছেন। একসময় উনি বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএর সঙ্গী ছিলেন। আরএসএসের তরফে একটি বই প্রকাশ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন মমতা। তিনি বাংলায় বামেদের হঠাতে আরএসএসের সমর্থনও চেয়েছিলেন।’ অধীরের দাবি, বিজেপির আদর্শগত ভিত্তি আরএসএসের প্রতি মমতা তাঁর কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেছেন। ভোটের রাজনীতির জন্য কখনও মমতা হিন্দু মৌলবাদীদের উসকানি দেন, কখনও মুসলিমদের এমনটাই জানান অধীর।

সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সুজন চক্রবর্তী জানান, মমতা ‘আরএসএসের তৈরি’ বলে বামেরা অভিযোগ করে, মমতার মন্তব্য সেটাকেই প্রমাণ করেছে। সুজনের কথায়, আরও একবার প্রমাণ হয়ে গেল বিজেপি বিরোধি লড়াইয়ে মমতা বিশ্বাসযোগ্য নয়। যদিও যে আরএসএসের প্রসঙ্গে মমতার মন্তব্য নিয়ে এত চর্চা সেই আরএসএস অবশ্য মমতাকে রাজ্যে রাজনৈতিক হিংসা রোখার পরামর্শ দিয়েছে। আরএসএসের মুখপাত্র জিষ্ণু বসু বলেন, ‘আমরা মমতাকে বলব রাজনৈতিক মতাদর্শগত ভিন্নতা থাকার মানে এই নয় যে আপনি কাউকে হত্যা করবেন।’ রাজ্যে নির্বাচন পরবর্তী হিংসায় ৬০ জনের মৃত্যুর প্রসঙ্গ তুলে তাঁর দাবি, মমতা রাজ্যে আইন শৃঙ্খলা ও শান্তি প্রতিষ্ঠা সুনিশ্চিত করুন। তিনি তাঁদেরও মুখ্যমন্ত্রী যাঁরা তাঁকে ভোট দেননি। তবে মমতার মন্তব্যকে উড়িয়ে দিয়ে বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষের দাবি, আরএসএস বা বিজেপি কারও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছ থেকে পরামর্শ নেওয়ার দরকার নেই।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Skip to toolbar