Friday, January 27, 2023
Homeখবর এখন২১ শে জুলাই সমাবেশে'র নামে চাঁদা তুললেই বহিষ্কার! অভিষেকের নজরে উত্তরবঙ্গ

২১ শে জুলাই সমাবেশে’র নামে চাঁদা তুললেই বহিষ্কার! অভিষেকের নজরে উত্তরবঙ্গ

 প্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধাঃ ২১ শে জুলাইয়ের নামে কোনও চাঁদা তোলা যাবে না। স্পষ্ট বার্তা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। হাতে আর মাত্র কয়েকটা দিন। ফলে এখন থেকেই জুলাইয়ের প্রস্তুতিতে নেমে পড়া দরকার। আর সেদিকে তাকিয়েই আজ শুক্রবার একটি বৈঠকের ডাক দেন তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড।পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত বক্সি সহ দলের একাধিক শীর্ষ নেতৃত্ব উপস্থিত ছিলেন এই বৈঠকে। ছিলেন বেশ কয়েকজন বিধায়ক এবং সাংসদও। আর সেই বৈঠকেই শহিদ দিবসের দিকে একাধিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে খবর।

চাঁদা তোলা যাবে না

সভা-সমাবেশের নামে চাঁদা তোলার একাধিক অভিযোগ উঠেছে এর আগে! সেদিকে তাকিয়ে এবার অনেক বেশি সাবধানী তৃণমূল। সম্প্রতি হলদিয়া সভার আগে কোনও চাদার নামে টাকা তোলা যাবে না বলে স্পষ্ট নির্দেশ দিয়েছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এবারও ২১ শে জুলাইয়ের আগে এই বিষয়টি নিয়ে প্রথমদিন থেকেই কড়া শাসকদল। এদিনের বৈঠকে অভিষেক স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, ২১শে জুলাইয়ের নামে কোনও চাঁদা কিংবা টাকা তোলা যাবে না। এমন অভিযোগ সামনে আসলে দল থেকে বহিস্কার করে দেওয়ারও হুঁশিয়ারি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

ধর্মতলায় ফিরছে ২১ শে জুলাই

গত দু’বছর করোনার কারণে বড় করে ২১ শে জুলাইয়ের সমাবেশ করা যায়নি। কিন্তু এবার সেই ধর্মতলাতেই ফিরছে শহিদ দিবস। এমনটাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। এমনকি একাধিক রাজ্যে অনলাইনের মাধ্যমে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাষণ শোনানোর ব্যবস্থাও থাকছে বলে জানা যাচ্ছে। এদিন বৈঠকে অভিষেক জানান, গোটা দেশ তৃণমূলের ২১ শে জুলাইয়ের দিকে তাকিয়ে রয়েছে। ফলত স্পষ্ট যে এবার ২১ শে জুলাই ঐতিহাসিক হতে চলেছে। দিল্লিতেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাষণ শোনানো হবে বলে জানা যাচ্ছে।

তৃণমূলের নজরে উত্তরবঙ্গ

এবার তৃণমূলের নজরে উত্তরবঙ্গ। উত্তরবঙ্গের মানুষ বঞ্চিত! আর এই দাবিতে বারবার বাংলা ভাগের দাবি তুলেছে বিজেপির একাধিক বিধায়ক। শুধু তাই নয়, উত্তরবঙ্গে বিজেপি তাঁদের পায়ের তলার মাটি শক্ত করেছে। আর সেই শক্ত ভূমি থেকেই বেশি সংখ্যায় মানুষকে যাতে ধর্মতলামুখী করা যায় সেই সিদ্ধান্তই এবার নেওয়া হয়েছে তৃণমূলের তরফে। ২১ শে জুলাইয়ের মঞ্চ থেকেই একাধিক বার্তা দিয়ে থাকেন মমতা। উত্তরবঙ্গ নিয়ে বিশেষ বার্তা দিতে পারেন তিনি। আর সেই লক্ষ্যেই কি এবার উত্তরবঙ্গ থেকে বেশী মানুষকে ধর্মতলায় নিয়ে আসতে মরয়া শাসকদল।

পঞ্চায়েত-লোকসভা টার্গেট-

করোনার কারণে এবার বিজয় উৎসব হয়নি। ফলে শহিদ সমাবেশকে সামনে রেখেই এগোচ্ছে তৃণমূল। আর এরমধ্যেই বছর ঘুরলেই বাংলায় পঞ্চায়েত নির্বাচন। আর এরপরপরেই লোকসভা নির্বাচন। আর সেদিকে তাকিয়েই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কি বার্তা দেয় সেটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। এমনটাই মত রাজনৈতিকমহলের।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Skip to toolbar