Saturday, February 4, 2023
Homeখবর এখনবিজেপি নেতা অমিত মালব‍্যর প্রশ্ন -২১ জুলাই শহিদ দিবসের অনুষ্ঠানটি কার? তৃণমূলের...

বিজেপি নেতা অমিত মালব‍্যর প্রশ্ন -২১ জুলাই শহিদ দিবসের অনুষ্ঠানটি কার? তৃণমূলের না সরকারের

 প্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধাঃ২১ জুলাই। তৃণমূল কংগ্রেসের শহিদ দিবস। আগেই এই দিনটিকে বিজেপির বিরুদ্ধে জেহাদ দিবস পালন করার ডাক দিয়েছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যা নিয়ে তাঁর তীব্র সমালোচনা হয়েছিল। কিন্তু এবার এই বিশেষ দিনে সরকারি হাসপাতালে বিশেষ করে বড় রাস্তার ধারের হাসপাতালগুলিতে মেডিক্যাল টিম তৈরি রাখার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার। যা নিয়ে নতুন করে আক্রমণ করেছেন বিজেপির আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য। তিনি বলেছেন, তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় অনুষ্ঠানে জনস্বাস্থ্য পরিকাঠামোর নির্লজ্জ অপব্যবহার  করা হচ্ছে। 

বিজেপির অভিযোগ তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় অনুষ্ঠানে  সরকারি হাসপাতাল বা জনস্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলির ব্যবহার করা হচ্ছে। বিজেপির আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় সরকারি এই নির্দেশনামার ছবি পোস্ট করে প্রশ্ন তুলেছেন ২১ জুলাই শহিদ দিবসে তৃণমূলের অনুষ্ঠান নাকি এটি সরকারি অনুষ্ঠান। কারণ এই অনুষ্ঠানে সরকারি জনস্বাস্থ্য ব্যবস্থান নির্লজ্জ অপব্যবহার করা হচ্ছে। পাশাপাশি তিনি আরও বলেছেন, জনগণের এই অনুষ্ঠানটি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির বিরুদ্ধে জিহাদের দিন হিসেবে ঘোষণা করার পুরো ব্যাপারটাই একটি হত্যাকাণ্ডের মত শোনাচ্ছে। যাইহোক রাজ্য সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী গত ১৯ জুলাই থেকে ২১ জুলাইয়ের শহিদ দিবসের অনুষ্ঠান শেষ না হওয়া পর্যন্ত জাতীয় সড়ক, রাজ্য সড়ক ও গুরুত্বপূর্ণ এলাকার সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলিতে মেডিক্যাল টিম তৈরি রাখতে হবে। পাশাপাশি রক্তও মজুত রাখতে হবে। যতক্ষণ  না এই অনুষ্ঠান শেষ হবে ততক্ষণ পর্যন্ত এই নির্দেশ কার্যকর থাকবে বলেও জানান হয়েছে। 

করোনা আবহের জন্য প্রায় দুই বছর পর ২১ জুলাইয়ের অনুষ্ঠান হবে। অনুষ্ঠানে নজিরবিহীন ভিড় করতে বদ্ধপরিকর তৃণমূল কংগ্রেস। শহিদ দিবসের অনুষ্ঠান যাতে সফল হয় তারজন্য আগেই একাধিক নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। 

অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব ইতিমধ্যেই এখন থেকেই ২১ জুলাই কর্মসূচি নিয়ে ব্যস্ত রয়েছে। ইতিমধ্যেই দলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিষয়টি নিয়ে বৈঠক করেছেন বলে সূত্রের খবর। তৃণমূল সূত্রের খবর ২১ জুলাইয়ের মঞ্চেই প্রত্যাবর্তন হতে পারে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের। কারণ আগেই তাঁর বান্ধবী নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করে এসেছেন। তারপর থেকেই শোভেনের তৃণমূলে ফেলার জল্পনা শুরু হয়ে গেছে।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Skip to toolbar