Friday, January 27, 2023
Homeখবর এখনবামেদের জবাবে সুকান্ত ১৫ দিন অপেক্ষা করুন বুঝতে পারবেন দিল্লিতে কী সেটিং...

বামেদের জবাবে সুকান্ত ১৫ দিন অপেক্ষা করুন বুঝতে পারবেন দিল্লিতে কী সেটিং হয়েছে…

 বিজেপির মিছিলে তৃণমূল বিধায়কের হামলার প্রতিবাদে আয়োজিত সভা থেকে পালটা হুমকি দিলেন সুকান্ত মজুমদার। রবিবার বিকেলে চুঁচুড়ার ঘড়ির মোড়ের সভা থেকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি বলেন, ‘চুরি করুন অসুবিধা নেই। হিসেবটা যখন বেশি হয়ে যাবে তখন ইডি চলে আসবে বাড়িতে’।শুক্রবার চুঁচুড়ার খাদিনা মোড়ে বিজেপির মিছিলে সশস্ত্র অবস্থায় হামলা চালানোর অভিযোগ ওঠে তৃণমূল বিধায়ক অসিত মজুমদারের বিরুদ্ধে। সেই ঘটনার প্রতিবাদে রবিবার খাদিনা মোড় থেকে ঘড়ির মোড় পর্যন্ত মিছিল করে বিজেপি। মিছিল শেষে ঘড়ির মোড়ে জনসভায় সুকান্তবাবু বলেন, ‘মঞ্চে দাঁড়িয়ে বলছি অসিত চোর, তপন চোর, তৃণমূলের সবাই চোর। চুরি করুন অসুবিধা নেই। হিসেবটা যখন বেশি হয়ে যাবে তখন ইডি চলে আসবে বাড়িতে। চিন্তা নেই আমরা পাঠিয়ে দেব। অনুব্রত মণ্ডলকে আবার ডেকেছে। যাবনা বলছে। যেতে তো তোমাকে হবেই। আমি কথা দিচ্ছি এমন আতিথেয়তা করবে ইডি তোমার আর ফিরতে ইচ্ছে করবে না। সবে একজন ভিতরে গেছে। আরো লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। আমি আপনাদের আশ্বস্ত করতে চাই। আমাদের বিরোধী দলের লোকেরা যে সমস্ত কথা বলছে সেটিং এর তত্ব নিয়ে আসছে, আমি বলছি ১৫ দিন অপেক্ষা করুন কি ভয়ঙ্কর সেটিং হয়েছে তা দেখতে পাবেন’।সুকান্ত বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী দিল্লিতে গেছেন এক হাজার কোটি টাকার নাকি লিস্ট বানিয়ে নিয়ে। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করবেন সঙ্গে একটা বলদও নিয়ে গেছেন। প্রধানমন্ত্রী মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে পারেন কিন্তু কোন বদলের সঙ্গে না। কেউ দেখা করতে গেলে আমরা যেমন সাংসদ হিসেবে দেখা করি সেরকমই দেখা করতে হবে। পিনারাই বিজয়ন এর সঙ্গেও প্রধানমন্ত্রী দেখা করেন। আমরা সেই পিনারাই বিজয়ন এর সঙ্গে দেখা করি যারা বিরুদ্ধে বিজেপি আরএসএস কর্মিদের খুনের অভিযোগ আছে। তার সঙ্গে দেখা করি কারণ ভারতবর্ষের সংবিধানের নির্দিষ্ট একটা মাপ আছে। একজন মুখ্যমন্ত্রীর যদি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে চান প্রধানমন্ত্রী সময় দিতে বাধ্য। তিনি না করতে পারেন না। কিন্তু সিপিএম কংগ্রেস সেটিং বলে হাওয়া দিচ্ছে’।

রাজ্য বিজেপি সভাপতির দাবি, ‘আসল সেটিং তো আপনাদের সঙ্গে। যেদিন সোনিয়া গান্ধী আর পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠের বাড়িতে ইডি গেল সেদিন সীতারাম ইয়েচুরি বলতে লাগলেন ইডির অপব্যবহার হচ্ছে। সিপিএম ও তৃণমূলের ফিস ফ্রাই জোট। এরা পর্দার আড়ালে থাকে এটা হল আসল সেটিং আর আমাদের কোন সেটিং হতে পারে না কারণ আমাদের ২০০ জন কার্যকর্তা বলিদান দিয়েছে। তাদের রক্তের হিসাব যতদিন না পাব ততদিন লড়াই চলবে’।সুকান্তবাবু জানান, ‘কালকে দিল্লি যাব। সংসদে গুরুত্বপূর্ণ বিল আছে। সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার সঙ্গে দেখা করব। আর যদি লোকসভা চলে তাহলে অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করব। সব বৃত্তান্ত জানিয়ে বলব যাতে তার মাথাতেও এই নামগুলোও ঢুকে যায়। আর তিনি যখন চাবি ঘোরাবেন তখন দেখবেন একটার পর একটা অপারেশন শুরু হয়ে যাবে। চিন্তা নেই সময় এসেছে চোরেদের জেলে ঢোকানোর’।

চুঁচুড়া বিধায়ক অসিত মজুমদারকে আক্রমন করেন বলেন, ‘চোর বললে আপনার মাথা গরম হচ্ছে কেন? আপনার নেত্রী তো প্রশাসনিক বৈঠকে বলোছিলেন অসিত ভাগ করে খাও’। সভা শেষে চুঁচুড়া হাসপাতালে ভর্তি বিজেপি নেতা রাজীব নাগকে দেখতে যান সুকান্ত মজুমদার।

বিজেপি সভাপতির বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে চুঁচুড়ার বিধায়ক অসিত মজুমদার বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী ঠিকই বলেছিলেন তার পরিবারের লোককে বলেছিলেন।আর সেটা ছিল ইন্ডোর স্টেডিয়ামে। ভালোর জন্যই বলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। আর না বুঝে সুকান্ত মজুমদার এসব বলছেন। তখন বিজেপি হামাগুড়ি দিত। তৃণমূল মুখ্যমন্ত্রী যে অভিযোগ করছেন সেই বক্তব্যই তো বলছেন সুকান্ত বাবু ইডি সিবিআই দিয়ে ভয় দেখানোর কথা বলছেন। মানুষ সবই দেখছে শুনছে। আমার গাড়ি আটকে হেনস্থা করা হয়েছিল। তাই প্রতিরোধ করেছি। প্রত্যেক মানুষের আত্মরক্ষার অধিকার আছে। আমাকে কেউ আক্রমণ করলে তাকে আমি চুমু খাবো না’।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Skip to toolbar