Saturday, February 4, 2023
Homeখবর এখনদিল্লিতে মমতা সংসদীয় দলের বৈঠকে অস্বস্তিকর ‘অপা’র ছায়া...

দিল্লিতে মমতা সংসদীয় দলের বৈঠকে অস্বস্তিকর ‘অপা’র ছায়া…

 প্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধাঃ- 

রাজ্যে শিক্ষাক্ষেত্রে বেলাগাম দুর্নীতি ও প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়-সহ তাঁর ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের গ্রেপ্তারি নিয়ে যখন ‘ব্যাকফুটে’ তৃণমূল, তখনই রাজ্য থেকে ১৫০০ কিমি দূরে রাজধানী দিল্লিতে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সফরের প্রথমদিনে সেই ‘অপা’র ছায়া আরও একবার তীব্রভাবে প্রকট হল৷ বৃহস্পতিবার দলের বর্ষীয়ান নেতা তথা রাজ্যসভার মুখ্য সচেতক সুখেন্দু শেখর রায় এর মহাদেব রোডের বাসভবনে আয়োজিত দলীয় সাংসদদের নিয়ে ‘ঘরোয়া’ বৈঠকে বারবার উঠল ‘অপা’ প্রসঙ্গ, যাকে কেন্দ্র করে অস্বস্তিতে তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব। এদিন, আগাগোড়া-ই ‘খোশমেজাজে’ থাকা তৃণমূল সভানেত্রীর কপালেও লক্ষ্য করা যায় চিন্তার ভাঁজ। ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে পাওয়া তথ্যে, গোটা বিষয় নিয়ে বিরক্ত মুখ্যমন্ত্রী। এক্ষেত্রে, পরিস্থিতি সামাল দিতে রাজ্যসভা ও লোকসভার বাছাই করা সাংসদদের নিয়ে এদিন আলাদা করে আলোচনায় বসেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক এবং ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

চার দিনের সফরে বৃহস্পতিবার নয়াদিল্লি এসে পৌঁছেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । শুক্রবার বিকেল সাড়ে চারটের সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে তাঁর পূর্বনির্ধারিত বৈঠক। এরপর সন্ধ্যে সাড়ে ছটায় রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন মমতা। শনিবার দিল্লি, পঞ্জাব সহ চার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করবেন মুখ্যমন্ত্রী। রবিবার নীতি আয়োগের বৈঠক সেরে সোমবার কলকাতায় ফিরে যাবেন তিনি। তবে, তার আগে এদিন কলকাতা থেকে চার্টাড বিমানে দিল্লি পৌঁছে মুখ্যমন্ত্রী সরাসরি হাজির হন ল্যুটিয়েন জোনে ৭, মহাদেব রোডস্থিত বর্ষীয়ান সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায়ের বাসভবনে। সেখানে দলীয় সাংসদদের সঙ্গে ঘরোয়া বৈঠকে অংশ নেন তিনি। তাঁকে পুষ্পস্তবক দিয়ে অভ্যর্থনা জানান দলের দুই প্রবীণ সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় ও কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতার সফরসঙ্গী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে বরণ করে নেন মৌসম বেনজির নুর। সূত্রের দাবি, দীপক অধিকারী (দেব), চৌধুরীমোহন জাটুয়া, নুসরত, সুব্রত বকসির মতো জনা পাঁচেক সাংসদ বাদে এদিনের বৈঠকে হাজির ছিলেন সকলেই। সূত্র অনুযায়ী, এদিন আগাগোড়া খোশমেজাজে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। গ্রিলড স্যাণ্ডুইচ, শিক কাবাব, চা, কফি সহযোগে চলে ‘নির্ভেজাল’ আড্ডা, গল্প ও হাসিঠাট্টা। তবে একইসঙ্গে সংসদীয় অধিবেশনের শেষ সপ্তাহের জন্য দলীয় সাংসদদের এজেন্ডাও ঠিক করে দেন মুখ্যমন্ত্রী, জানা গিয়েছে বিশ্বস্ত সূত্রে।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তৃণমূলেরই এক সাংসদের দাবি, চলতি বাদল অধিবেশনের শেষ পর্বের জন্য ঝাড়খণ্ড-বাংলা অবৈধ টাকা লেনদেন ও কেন্দ্রীয় সরকারের ‘অনৈতিক’ হস্তক্ষেপ নিয়ে উভয় সদনে দলীয় সাংসদদের প্রতিবাদের ঝড় তোলার জন্য খোলা নির্দেশ দেন তিনি। এছাড়া নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধি, মুদ্রাস্ফীতি, বেকারত্বের মত ইস্যুও সংসদের ভূমিতে তোলার নির্দেশ দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী৷ তাৎপর্যপূর্ণভাবে ইডি-সিবিআই নিয়েও সুর চড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তবে সার্বিক পরিস্থিতি অনুধাবন করেই কেন্দ্রীয় এজেন্সিদের বিরুদ্ধে সরব হওয়ার নির্দেশ দেন তিনি। তবে এই বৈঠকেই পড়ে ‘অপা’র ছায়া, যা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে দলের অভ্যন্তরে।সূত্র অনুযায়ী, নয়াদিল্লিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দলীয় সাংসদদের বৈঠকে বারংবার ছায়া ফেলল পার্থ-অর্পিতা কাণ্ড। জানা গিয়েছে, গল্পের ছলে সাংসদরা বৈঠকে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে মুখ্যমন্ত্রী এবং সর্বভারতীয় সম্পাদকের কাছে অভিযোগ জানান, যে পার্থ চট্টোপাধ্যায় গ্রেপ্তার হওয়ার পরে ক্ষুণ্ণ হয়েছে দলের ভাবমূর্তি। এমনকি, দলের অনুগত কর্মী এবং সাধারণ মানুষরাও এটা বিশ্বাস করছেন না যে দল কোনওভাবেই চাকরির নিয়োগ সংক্রান্ত এই বিপুল দুর্নীতির বিষয়ে কিছু জানত না। শেষমেষ বিরক্ত অভিষেক পরিষ্কার জানিয়ে দেন, এই বিষয়ে অত্যন্ত কড়া দল। দলের সংবিধান মেনে শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি যথাযথ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই বিষয়গুলি তুলে ধরতে হবে সাধারণ মানুষের সামনে বলেও নির্দেশ দেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। এছাড়াও ঝাড়খণ্ডের তিন কংগ্রেস বিধায়কের বিপুল পরিমাণ টাকা নিয়ে কলকাতায় গ্রেপ্তার হওয়া, দিল্লি ও অসমে সিআইডি আধিকারিকদের হেনস্তা এবং মূল্যবৃদ্ধি ইস্যুতে সংসদে আন্দোলন আরও জোরদার করার বার্তা এদিন সাংসদদের দিয়েছেন মমতা ও অভিষেক।সুখেন্দু শেখর রায়ের বাড়ির বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, ডেরেক ও ব্রায়েন, কাকলি ঘোষ দস্তিদার, মালা রায় প্রমুখ। সেই বৈঠকে অবধারিতভাবেই ওঠে পার্থ চট্টোপাধ্যায় প্রসঙ্গ। সাংসদরা রীতিমতো বিস্ময় প্রকাশ করেন, কীভাবে এত বড় ঘটনা ঘটে গেল দলের অগোচরে! ‘অপা’র বিশাল সম্পত্তি নিয়েও প্রশ্ন তোলেন অনেকে। এই বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী নীরব থাকলেও সাংসদদের উত্তর দেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, দল একটা নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে চলে। অভিযোগ উঠলেই তাঁর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করা যায় না। কিন্তু যখন চোখের সামনে অনেক ঘটনা প্রকাশ হয়ে যায় তখন শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটি দলের সংবিধান অনুযায়ী পদক্ষেপ গ্রহণ করে। এক্ষেত্রেও সেটা হয়েছে। এই ঘটনার সঙ্গে দল কোনওভাবেই যুক্ত নয়, পরিষ্কার জানিয়ে দেন অভিষেক। একই সঙ্গে তিনি সাংসদদের বার্তা দেন, যেখানে এই বিষয়ে উঠবে সেখানেই যেন অতি দ্রুত তদন্ত শেষ করে মামলার নিষ্পত্তি হওয়ার দাবি তোলেন তাঁরা।

ইডির ধরপাকড় প্রসঙ্গে ঈষৎ বিরক্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, দলের সাংসদদের সামনে এদিন কংগ্রেস নেতা এবং সাংসদ অধীর চৌধুরীর বিরুদ্ধে চরম বিরক্তি প্রকাশ করেন। সূত্রের খবর, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, অধীর চৌধুরী রাজ্যে ইডির যাবতীয় কাজকর্মকে সমর্থন করছেন এবং যতটা পারছেন তৃণমূল কংগ্রেস সরকারকে তুমুল আক্রমণ করছেন। আবার সেই অধীর চৌধুরী যখন দিল্লিতে তাঁদের নেতা-নেত্রীকে এজেন্সিগুলি একইভাবে হয়রানি করছে তখন তিনি ইডির বিরুদ্ধে গলা ফাটাচ্ছেন। অধীরের এই দ্বৈতনীতির সমালোচনাও করেন মুখ্যমন্ত্রী। অধীর অবশ্য এই অভিযোগ খণ্ডন করে বলেছেন, ‘শাক দিয়ে মাছ ঢাকার চেষ্টা করছেন মুখ্যমন্ত্রী। আমরা রাজ্যে কখনই ইডি-কে সমর্থন করিনি। আদালতের নির্দেশের ওপর ভরসা রেখেছি।’

দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, আগামীকাল পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি মেনে সংসদ ভবনের সেন্ট্রাল হলে গিয়ে সাংসদদের সঙ্গে দেখা করার পরিকল্পনা বাতিল করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। সূত্রের খবর, সাংসদদের পরামর্শেই মুখ্যমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্ত। কারণ দলের বরিষ্ঠ সাংসদরা মুখ্যমন্ত্রীকে জানিয়েছেন, তিনি সংসদ ভবনের সেন্ট্রাল হলে পৌঁছালে সেখানে পৌঁছে যেতে পারেন বিরোধী জোটের উপরাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী মার্গারেট আলভা। তিনি সোজাসুজি মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সমর্থনের দাবি রাখতে পারেন। এছাড়াও সেন্ট্রাল হলে বিরোধী সাংসদরা, বিশেষ করে বঙ্গ বিজেপি পার্থ চট্টোপাধ্যায় প্রসঙ্গ এবং উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে তৃণমূলের বিরত থাকা নিয়ে অনেক প্রশ্ন তুলতে পারে। সূত্রের খবর, সম্ভাব্য বিব্রতকর এই পরিস্থিতি পাশ কাটানোর জন্যই মুখ্যমন্ত্রীকে সেন্ট্রাল হলে যেতে না করেছেন সাংসদরা।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Skip to toolbar