Saturday, February 4, 2023
HomeIndiaইডি(ED) কি টলিয়ে দেবে মমতার ভিত পার্থ- অর্পিতার গ্রেফতারির পর যাদের নজরে...

ইডি(ED) কি টলিয়ে দেবে মমতার ভিত পার্থ- অর্পিতার গ্রেফতারির পর যাদের নজরে এবার তৃণমূলের ১৯..

প্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধাঃ- শিক্ষক দুর্নীতি-কাণ্ডে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। সিবিআই জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেও বাংলার হেভিওয়েট মন্ত্রীকে জালে পুরতে পারেনি’, হঠাৎ ইডি উদয় হয়ে নিয়োগ কেলেঙ্কারিতে প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করেছে। সেখানেই থেমে থাকতে চাইছেন না ইডি আধিকারিকরা। তাঁদের নজরে রয়েছে আরও ১৯ ইডির পরবর্তী পদক্ষেপে অস্বস্তিতে রাজ্যের মা-মাটি-মানুষের সরকার।তৃণমূলের নেতা-মন্ত্রীদের সম্পত্তি বিগত পাঁচ বছরে বহুগুণ বেড়েছে। যে সমস্ত নেতা-নেত্রী ও বিধায়ক-মন্ত্রীদের আঙুল ফুলে কলাগাছ হয়েছে, তাঁদের দিকে বিশেষ দৃষ্টি দিয়েছে কেন্দ্রের তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি খতিয়ে দেখতে চাইছে কী করে তাঁদের সম্পত্তির বৃদ্ধি আকাশ ছুঁল। এঁদের সম্পত্তির বাড়-বৃদ্ধির সঙ্গে পার্থ-অর্পিতাদের কোনও যোগ রয়েছে কি না, তাও খতিয়ে দেখতে চাইছে ইডি।২০১১ সালে পরিবর্তনের আগে তৃণমূলের নেতা-মন্ত্রীদের সম্পত্তির খতিয়ানের সঙ্গে বর্তমান খতিয়ানেনর তুলনা করে ইডি আধিকারিকরা এগোতে চাইছে। ২০১১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের নেতারা সম্পত্তির কী খতিয়ান দিয়েছিল। আর ২০১৬ সালের তাঁদের সম্পত্তির পরিমাণ কী দাঁড়ায়। তারপর ২০২১-এ সম্পত্তির খতিয়ান কী দাঁড়িয়েছে তা খতিয়ে দেখতে চাইছে ইডি।এখন ইডি যাঁদের দিকে নজর দিতে চলেছে, সেই তালিকায় কারা আছেন? কোন মন্ত্রী ও বিধায়ক বা নেতারা রয়েছেন ইডির তালিকায় তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে। বিশেষ সূত্রে জানা গিয়েছে আরও ১৯ জন নেতা-নেত্রী রয়েছে ইডির আতস কাচের তলায়। কীভাবে বেড়েছে তাঁদের সম্পত্তি, তা খতিয়ে দেখাই এখন ইডির চ্যালেঞ্জ। ইডির এই পদক্ষেপ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘুম কেড়ে নেওয়ার পক্ষে যথেষ্ট।প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় দুর্নীতি-কাণ্ডে জেল হেফাজতে রয়েছেন। তাঁর ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে টাকার পাহাড়। বহু সোনাদানা, গয়নাগাটি এবং একাধিক সম্পত্তি। শুধু কলকাতা নয়, বাংলার বিভিন্ন জেলায় জেলায় সম্পত্তি রয়েছে প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের। তারপরই তৃণমূলের আরও ১৯ জনকে স্ক্যানারে রেখেছে ইডি। এখন ১৯ জনকে জেরা শুরু হলে তৃণমূল সরকার পড়ে যাবে প্রবল চাপে। ২০২৪-এর আগে তাই অগ্নিপরীক্ষায় সামনে মমতার ‘সততার প্রতীক’ ট্যাগ।২০১৭ সালে হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা হয়েছিল। মামলা দায়ের করেন জনৈকি বিপ্লবকুমার চৌধুরী। সেই মামলাতেই ইডিকে পার্টি করার নির্দেশ দেয় কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। ২০১১ সালের ভোটের সময় শাসকদলের নেতা-মন্ত্রীর পরিমাণ অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। সেই নির্বাচনী হলফনামাকে হাতিয়ার করেই তৃণমূল নেতা-নেত্রীদের সম্পত্তির খতিয়ান খতিয়ে দেখতে জনস্বার্থ মামলা হয়েছিল। সেই মামলায় ইডি যুক্ত হওয়ায়, যাঁদের নাম ছিল তালিকায়, তাঁরা এবার ইডির আতসকাঁচের তলাতেও উঠে এলেন।জনস্বার্থ মামলায় যাঁদের নাম উল্লেখ করা হয়েছিল, তাঁদের মধ্যে অনেক মন্ত্রীও রয়েছেন। অনেকে বর্তমানে রাজ্যের মন্ত্রী। কেউ কেউ আবার প্রাক্তন হয়েছেন। রয়েছেন ফিরহাদ হাকিম, জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, গৌতম দেব, মলয় ঘটক, অরূপ রায়, শিউলি সাহা, ব্রাত্য বসুর নাম। রয়েছে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের নামও। আর রয়েছে অর্জুন সিং, ইকবাল আহমেদ, স্বর্ণকমল সাহা, জাভেদ খান, এমনকী অমিত মিত্রের নামও। এছাড়া আবদুর রেজ্জার মোল্লা, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, সব্যসাচী দত্ত এবং সদ্য প্রয়াত সুব্রত মুখোপাধ্যায় ও সাধন পান্ডের নামও রয়েছে এই তালিকায়।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Skip to toolbar