Wednesday, February 8, 2023
Homeখবর এখনইডির জেরায় বিস্ফোরক দাবি অর্পিতার,ফ্ল্যাট তাঁর হলেও ঘরে ঢোকার অনুমতি ছিল না!...

ইডির জেরায় বিস্ফোরক দাবি অর্পিতার,ফ্ল্যাট তাঁর হলেও ঘরে ঢোকার অনুমতি ছিল না! ঘরে পাওয়া সব টাকাই পার্থর

 প্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধাঃ ইডির জেরায় মাঝে মধ্যেই কাঁদছেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায় । দাবি করছেন তিনি নির্দোষ। আগের দিন জেরায় রাজ্যের মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের  দীর্ঘ দিনের ঘনিষ্ঠ বান্ধবী জানিয়েছিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় তাঁর ফ্ল্যাটকে মিনি ব্যাঙ্ক বানিয়েছিলেন। আর এবার ইডির জেরায় অর্পিতা মুখোপাধ্যায় দাবি করেছেন ফ্ল্যাটে রাখা টাকার পরিমাণ সম্পর্কে তিনি কিছুই জানতেন না। আর সব টাকাই পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বলেও দাবি করেছেন তিনি।গত শুক্রবার ও শনিবার টালিগঞ্জ করুণাময়ীর ডায়মন্ড সিটি সাউথে অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছিল প্রায় ২২ কেটি টাকা নগদ। আর এবার বুধবার ও বৃহস্পতিবার বেলঘড়িয়ার ফ্ল্যাটে তল্লাশিতে উদ্ধার করা হয়েছে

প্রায় ২৮ কোটি টাকা নগদে। সব মিলিয়ে উদ্ধার প্রায় ৫০ কোটি। স্বাধীনতার পরে পশ্চিমবঙ্গে কোনও তল্লাশিতে এত কোটি টাকা উদ্ধার এবং তার সঙ্গে কোনও রাজনীতিবিদের নাম জড়িয়ে পড়াটা কেউ মনে করতে পারছেন না। এতদিন এইসব ঘটনা শোনা গিয়েছে হিমাচল প্রদেশে, মহারাষ্ট্র, গুজরাত কিংবা কর্নাটকে। এবার তার সঙ্গে যুক্ত হল বাংলার নামও।সূত্রের খবর অনুযায়ী, বুধ-বৃহস্পতিবার এই টাকা উদ্ধারের পরেও অর্পিতা মুখোপাধ্যায় ইডির আধিকারিকদের সামনে দাবি করেছেন, যে ঘরে টাকা থাকত, সেই ঘরে তাঁর প্রবেশের কোনও অনুমতি ছিল না। আর পার্থ চট্টোপাধ্যায় সেই ঘরে ঢুকলে, তিনি সেখানে ঢুকতেন না। তবে পার্থ চট্টোপাধ্যায় মাঝে মধ্যে আসতেন। আসত তাঁর লোকজন। ইডির আধিকারিকদের সামনে অর্পিতা বারে বারেই নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করেছেন বলে জানা গিয়েছে।সূত্রের খবর অনুযায়ী প্রায় বছর সাতেকের বেশি সময়ের পরিচয় পার্থ-অর্পিতার। সেই প্রবল প্রতাপশালী মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। ইডিকে জেরায় বলেছিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ই তাঁর ফ্ল্যাটকে মিনি ব্যাঙ্ক বানিয়েছিলেন। অর্পিতা ইডির কাছে বলেছিলেন, যে ঘরে টাকা রাখা হত, সেখানে তার প্রবেশে অনুমতি ছিল না। পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর লোকেরাি সেখানে প্রবেশ করতেন। টালিগঞ্জের ফ্ল্যাট থেকে টাকা উদ্ধারের পরে অর্পিতা নাকি বলেছিলেন প্রতি সপ্তাহে বা ১০ দিনে একবার পার্থ চট্টোপাধ্যায় তাঁর ফ্ল্যাটে যেতেন এবং টাকার দেখভাল করতেন। অর্পিতা আগেই দাবি করেছিলেন, ঘরে কত টাকা রাখা হচ্ছে তা তিনি জানতেন না।ফ্ল্যাটে টাকার পাহাড়। প্রতিবেশীরাও ভাবতেই পারছেন না এত টাকা ফ্ল্যাটে থাকতে পারে। সিনেমায় অনেকেই দেখেছেন। কিন্তু বাস্তবে যে তা হতে পারে এবং এই বাংলায় তা অনেকেই এখনও বিশ্বাস করতে পারছেন না। অনেকেইবলছেন আরও অনেকেই কাছে এরকম টাকা থাকতেই পারে। যদি তা থেকেও থাকে, আদৌ কি তা উদ্ধার করা যাবে, সেই প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments

Skip to toolbar